সিরিয়ায় ৩ হাজার আইএস জিহাদির আত্মসমর্পণ

cnnbangla ডেস্ক) : সিরিয়ার ইসলামিক স্টেট অধিকৃত সর্বশেষ অঞ্চলের প্রায় ৩ হাজার জিহাদি আত্মসমর্পণ করেছে।
আইএস মঙ্গলবার কুর্দি নেতৃত্বাধীন বাহিনী একথা জানিয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।
২০১৪ সালে সিরিয়া পার্শ্ববর্তী ইরাকের একটি বড় অংশ নিয়ে গোষ্ঠীটি ‘খিলাফত’ ঘোষণা দিয়েছিল।
মার্কিন সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্স (এসডিএফ) কয়েক সপ্তাহ ধরেই আইএস অধিকৃত সর্বশেষ অঞ্চলটি দখল নিতে জোর লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু নদী তীরবর্তী এলাকায় সাধারণ নারী, পুরুষ ও শিশুদের জন্য তাদের অগ্রযাত্রা ব্যহত হচ্ছে।
আত্মসমর্পনের জন্য বেঁধে দেয়া সময় শেষ হয়ে গেলে রোববার মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের সহায়তায় এসডিএফ নতুন করে অভিযান শুরু করেছে।
টানা তিন রাত ধরে বাগৌজে বিমান হামলা ও গোলা বর্ষণ চলছে। এতে বিপুল সংখ্যাক যোদ্ধা নিহত ও কয়েকশ’ জিহাদি ও তাদের আত্মীয়স্বজন আত্মসমর্পণ করেছে।
সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সের মুখপাত্র মুস্তাফা বালি মঙ্গলবার সন্ধ্যায় টুইট বার্তায় জানান, ‘গতকাল সন্ধ্যা থেকে এ পর্যন্ত ৩ হাজার আইএস জিহাদি আমাদের কাছে আত্মসমর্পন করেছে।’
তিনি আরো বলেন, সংখ্যালঘু ইয়াজিদি সম্প্রদায়ের তিন নারী ও চার শিশুকেও উদ্ধার করা হয়েছে।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এসডিএফ ও মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট আইএস এর সর্বশেষ ঘাঁটিতে ব্যাপক গোলা ও বিমান হামলা চালায়।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এসডিএফ এর বেশ কয়েকজন যোদ্ধা বাগৌজ গ্রামের প্রবেশপথে হামলা চালায়।
ইউনিট কমান্ডার শরিফ বলেন, তার বাহিনী জিহাদিদের ওপর হামলা চালাতে প্রস্তুত রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, ‘আমরা পূর্ণ শক্তি নিয়েই অভিযান চালাব।’
মঙ্গলবার ভোরে এসডিএফ ইউনিট কমান্ডার আলি চেইর বলেন, তার বাহিনী ও জোট জিহাদিদের হটিয়ে দিতে রাতভর আইএস ঘাঁটিগুলোতে হামলা চালিয়েছে।
ডিসেম্বর থেকে প্রায় ৬০ হাজার মানুষ আইএস এর সর্বশেষ অধিকৃত এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে বলে ব্রিটেন ভিত্তিক পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে।
বাগৌজ সিরিয়ার চলমান গৃহযুদ্ধের সর্বশেষ যুদ্ধক্ষেত্র। এখানে ২০১১ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ৩ লাখ ৬০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে।